খুন করেও শেষ হয়নি, মিয়াজি পরিবারকে নিশ্চিহ্ন করাই তাদের টার্গেট

খুন করেও শেষ হয়নি, মিয়াজি পরিবারকে নিশ্চিহ্ন করাই তাদের টার্গেট

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া ছেংগার চরের ষাটনল এলাকায় মোবাইল ব্যবসায়ী উজ্জ্বল মিয়াজীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। ইতিমধ্যে উজ্জ্বল মিয়াজীকে কুপিয়ে হত্যার রহস্য ধামাচাপা দিতে প্রতারনার জাল বুনছে আদালত চত্তরে ।

গত ৪ মে বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।কবির খালাশি, জজ মিয়া খালাশি, নাহিদ খালাশি, তুষার খালাশি, বাবলা ডাকাত, উজ্জল খালাশি, মোমিন মিজি, ইকবাল মিজি, শফি মিজি, বাদশা ডাকাত সহ অজ্ঞত ২০/২৫ জন মিলে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে গুলি করে উজ্জ্বল মিয়াজিকে হত্যা করে।সহ চক্রের সহযোগীরা এ হত্যাকাণ্ডটি ঘটিয়েছে। নিহতের বড় ভাই গোলাম কিবরিয়া মিয়াজি বাদি হয়ে মতলব উত্তর থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। এদিকে হত্যাকান্ডের পর একজন সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নিহতের স্বজনরা জানান, গত ৪ মে বৃহস্পতিবার রাতে প্রায় সাড়ে ১২টায় মুন্সিগঞ্জের কালিরচর এলাকায় ঢাকার যমুনা ফিউচার পার্কের মোবাইল ব্যাবসায়ী উজ্জ্বল মিয়াজী ঈদ পুর্নমিলনীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে মিুন্সিগঞ্জের গজারিয়া ছেংগার চরের ষাটনল এলাকায় যান। রাতে অনুষ্ঠান স্থল পরিদর্শন করতে গেলে অভিযুক্তরা উজ্জ্বল মিয়াজিকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুলি করে হত্যা করা হয় । পরে খরব পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

নিহতের বড় ভাই গোলাম কিবরীয়া মিয়াজি অভিযোগ করেন, কবির খালাসী চক্র এলাকার নৌ ডাকাত হিসেবে পরিচিত। তারা খুন খারাবি, দখলবাজি, চাঁদাবাজিসহ নানা অপকর্মে লিপ্ত। আমি আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান, জীবনে হারাম ভাবে আমাদের পরিবার কখনো একটি টাকাও মেরে খাই নাই । আমার ভাই আমাদের এলাকার মসজিদ মাদ্রাসা ও অনাথ শিশুদের পাশে অর্থ বিত্ত শ্রম দিয়ে পাশে দাড়াতো । এই নারায়নগঞ্জ বাসীর যারা উজ্জল মিয়াজি কে চিনতে জানতো ভাল বলতে পারবে উজ্জল মিয়াজী কতটা সাদা মনের মানুষ ছিলেন। আমি বাংলাদেশ পুলিশের সহযোগীতা কামনা করছি । তাদের বিচক্ষন কিছু ভূমিকা নিলে আমার ভাইয়ের হত্যাকারীরা গ্রাপ্তার ও তাদের অন্যায়ের শাস্তি পেত।

এদিকে ঘটনার তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহজাহান কামাল বলেন আসামিদের গ্রেপ্তারে থানা পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা দলও কাজ করছে।আমাদের চেষ্টা অব্যাহত আছে। এ মামলার বিষয়ে মুন্সিগঞ্জ থেকে শুরু করে রাজধানী ঢাকা সহ বিভিন্ন অঞ্চলে কাজ করছে । ইতি মধ্য একজনকে গ্রোপ্তার করা হয়েছে। আশা করছি খুব দ্রুত আমরা সকল আসামীদে গ্রেপ্তার করতে পারবো ।

16
6
3
5

Posts

প্রধান পৃষ্ঠপোষক: আলহাজ্ব ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ্ (এমপি),মাননীয় সংদ সদস্য ঢাকা ১৬,
প্রধান উপদেষ্ঠা: সাইদুর রহমান রিমন, সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন
চেয়ারম্যান ও প্রকাশক: মোঃ মাসুদ রানা (জিয়া), সহকারি সম্পাদক, দৈনিক অগ্নিশিখা,
সম্পাদক: শাহাজাদা শামস ইবনে শফিক
সহ-সম্পাদক: মোঃশরিফুল ইসলাম (রবিন)

সম্পাদকীয় কার্যালয়
১২০/এ মতিঝিল বা/এ, ৪থ তলা, সুইট-৪০২, ঢাকা- ১০০০
বার্তা কক্ষ : ০১৬৪২০৭৮১৬৪
বিজ্ঞাপনের জন্য : ০১৬৮৬৫৭১৩৩৭
Gmail:banglarrazpratidin@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Developed by banglarraz24.com © 2022
x

Contact Us