শিক্ষা সাহিত্যে সৃজনশীলতায় অবদানের জন্য ১২জন আলোকিত মানুষ পেলেন “দিগন্ত ধারা সাহিত্য ” পুরষ্কার

শিক্ষা সাহিত্যে সৃজনশীলতায় অবদানের জন্য ১২জন আলোকিত মানুষ পেলেন "দিগন্ত ধারা সাহিত্য " পুরষ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক : সাপ্তাহিক দিগন্ত ধারা’ পত্রিকা সৃজনশীল অঙ্গনের ১৪জন আলোকিত মানুষকে “দিগন্ত ধারা সাহিত্য ” পুরষ্কার প্রদান করা হয়েছে। শিক্ষা সাহিত্যে সৃজনশীলতায় অবদানের জন্য ১২জন গুনী আলোকিত মানুষকে ‘দিগন্ত ধারা সাহিত্য’ পুরস্কার দিয়েছে সাপ্তাহিক দিগন্ত ধারা পত্রিকা।

শুক্রবার ২৭মে, বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ প্রোজেকশন হল, এফ-৫,আগারগাঁও এ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ এরিয়া, শের-এ-বাংলা নগর,কামাল স্মরণীর প্রোজেকশন হলে এ পুরষ্কার প্রদান করা হয়।

এ সময় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট লেখক ও সাহিত্যিক অধ্যাপক ড. হায়াৎ মামুদ। প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য প্রদান করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আবুল কাশেম ফজলুল হক। অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন সাপ্তাহিক দিগন্ত ধারা পত্রিকার প্রধান উপদেষ্টা ড. মোহাম্মদ আমীন।

সাহিত্য ও শিক্ষায় দৈনিক সমকাল এর প্রকাশক আবুল কালাম আজাদকে এছাড়া শিশু সাহিত্যে থিংক অ্যান্ড গ্রো রিচ বইয়ের জন্য নিলয় নন্দী, কবিতায় বিষ্ণু পদ ঘোষাল, বাংলা ভাষায় পশ্চিমবঙ্গ থেকে রীতা সরকার, ছোট গল্পে রাতুল কৃষ্ণ সরকার, অনুবাদ গ্রন্থে মোঃ শওকত আলী, মুজিব তোমায় দেখেছি প্রবন্ধে রানা হামিদ এবং সাংবাদিকতায় অবদানের জন্য মহসীন উল হাকিমকে দিগন্ত সাহিত্য পুরস্কার দেওয়া হয়।

শিক্ষা সাহিত্যে সৃজনশীলতায় অবদানের জন্য ১২জন আলোকিত মানুষ পেলেন "দিগন্ত ধারা সাহিত্য " পুরষ্কার
শিক্ষা সাহিত্যে সৃজনশীলতায় অবদানের জন্য ১২জন আলোকিত মানুষ পেলেন “দিগন্ত ধারা সাহিত্য ” পুরষ্কার

 

এ সময় অধ্যাপক আবুল কাশেম ফজলুল হক বলেন, ‘বর্তমানে সমাজের শিক্ষিত শ্রেণির কিছু লোককে বলতে দেখা যায়, তারা এখন রাষ্ট্রের নাগরিকের সঙ্গে বিশ্ব নাগরিক। এদেশ নাকি বসবাসের উপযোগী না। তারা আমেরিকা, কানাডা ও ইউরোপে বসবাস করেন। যারা বিশ্ব নাগরিক হিসাবে পরিচয় দেন তাদের এদেশের সরকারি চাকরি, রাজনীতি ও জনপ্রতিনিধি হওয়ার দরকার নেই। তারা যেন বিদেশি নাগরিকত্ব নিয়েই বিদেশেই থাকে। এদেশে আসার দরকার নেই।’ তিনি আরও বলেন, ‘দেশ প্রকৃতির তৈরি, রাষ্ট্র হচ্ছে নাগরিকের। আমাদের রাষ্ট্র দেশভাগ ও পাকিস্তানের শোষণ নির্যাতনের পর মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীন হয়। এটা সকল নাগরিকের বোধে থাকা উচিত। দেশকে ভালবাসা উচিত। দেশের শিল্প, সাহিত্য, ঐতিহ্যকে ধারণ করা উচিত। প্রাচীন আমল থেকে আমাদের বাংলা সাহিত্যের গৌরব আছে। যুগে যুগে কবি সাহিত্যিকরা বাংলা ভাষায় সাহিত্য রচনা করে গেছেন। তারা এদেশের ভাষা ও সাহিত্যকে বিশ্বপ্রমান্ডে দেশকে পরিচিত করে গেছেন। বর্তমানেও আমাদেরকে দেশের শিল্প সাহিত্যের মাধ্যমে দেশকে জানানো উচিত। দেশের ভাষা ও সাহিত্যে অবদানের জন্য এ ধরনের পুরস্কার আরও বেশি করে দেওয়া উচিত। ‘পুরস্কার গ্রহণের পর পুরস্কারপ্রাপ্তরা ‘সাপ্তাহিক দিগন্ত ধারা’ পত্রিকাকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

দৈনিক সমকাল পত্রিকার প্রকাশক আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘যারা সমাজের জন্য কাজ করে গেছেন তাদের অভিনন্দন। এ ধরনের পুরস্কার আরও ভালো কাজ করতে উৎসাহিত করবে।’

16
6
3
5

Posts

প্রধান পৃষ্ঠপোষক: আলহাজ্ব ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ্ (এমপি),মাননীয় সংদ সদস্য ঢাকা ১৬,
প্রধান উপদেষ্ঠা: সাইদুর রহমান রিমন, সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন
চেয়ারম্যান ও প্রকাশক: মোঃ মাসুদ রানা (জিয়া), সহকারি সম্পাদক, দৈনিক অগ্নিশিখা,
সম্পাদক: শাহাজাদা শামস ইবনে শফিক
সহ-সম্পাদক: মোঃশরিফুল ইসলাম (রবিন)

সম্পাদকীয় কার্যালয়
১২০/এ মতিঝিল বা/এ, ৪থ তলা, সুইট-৪০২, ঢাকা- ১০০০
বার্তা কক্ষ : ০১৬৪২০৭৮১৬৪
বিজ্ঞাপনের জন্য : ০১৬৮৬৫৭১৩৩৭
Gmail:banglarrazpratidin@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Developed by banglarraz24.com © 2022
x

Contact Us