হাজারও মামলা থাকার পরেও গ্রেফতার হচ্ছে না ডাকাত কালা জসিম ও তার সহযোগিরা

Loading...

নিজস্ব প্রতিবেদক : জসিমউদ্দিন ওরফে ডাকাত (কালা জসিম) এর বিরুদ্ধে মিলেছে একাধিক অভিযোগ। হাজার অভিযোগ থাকার পরেও পুলিশের ধোরা ছোয়ার বাহিরে ডাকাত কালা জসিম। নৌপথে লঞ্চে ডাকাতি করার একাধিক চলমান মামলা ও রয়েছে ডাকাত কালা জসিম ও তার সহযোগিদের বিরুদ্ধে। হত্যা, ডাকাতি বেপরোয়া দখলবাজি চাঁদাবাজি সহ জসিম এর বিরুদ্ধে রয়েছে অর্ন্তহীন অভিযোগ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে, ডাকাত কালা জসিম এক সময় নারায়ণগঞ্জ এলাকায় না খেয়ে দিন কাটতো তার। হটাত পালটে যায় তার জীবন। আসতে আসতে শুরু করে তার অপরাধ জগতের নতুন এক সামরাজ্র। সন্ধ্যার পর এলাকার বখাটেদের নিয়ে চুরি ছিনতাই করতো। ছোট খাটো অপরাধ করতে করতে এক সময় যোগ দেয় স্থানীয় বখাটে গ্রুপের টিমদের সাথে। সখ্যতা তৈরি করে সেই সময়ের বিভিন্ন সন্ত্রাসীদের সাথে। সেই থেকে শুরু হয় ডাকাত কালা জসিম এর সন্ত্রাস জীবন। গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান ডাকাত কালা জসিম ধীরে ধীরে হতে থাকে অগাধ সম্পত্তির মালিক।

যখন যে জমি, বাড়ি, গাড়ি তার ভালো লাগে সেটাই তার দখলে চলে আসে ক্ষমতার প্রভাবে। দিনদিন বৃদ্ধি পেতে থাকে ডাকাত কালা জসিমের বিভিন্ন অপরাধ মূলক কর্মকান্ড। আর এ অপরাধ কর্মকান্ড থেকে রেহায় পাইনি স্থানী সাধারণ জনতা ও ব্যবসায়ীরাও।

আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেন ডাকাত কালা জসিম। এমনকি নিজের অপরাধ লুকাতে ব্যবহার করেছেন বিভিন্ন মহলে রাজনৈতিকদের পরিচয়, কখনো ছাত্রলীগ কখনো আওয়ামী লীগ আবার কখনো যুবলীগ এমন কি অন্যের প্রতিষ্ঠান নিজের বলেও পরিচয় দিতে দ্বিধাবোধ করেন না তিনি।

স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন জসিম একাধিক ডাকাতি মামলার আসামি হওয়ার পরেও সে মাঝে মাঝে দলীয় ব্যানারে ব্যবহার করেন তিনি তাছাড়া চাঁদপুরের বাবলু ডাকাত ও নারায়ণগঞ্জের রমজান ডাকাত আর তাদের গটফাদার এই সেই জসিম ডাকাত তার বিরুদ্ধে রয়েছে ট্রলার ডাকাতি সহ অসংখ্য অভিযোগ তারপরও পুলিশ কেন ধরছে না। তার কারনে অনেক ব্যবসায়ীরা এলাকাও ছেরেছেন ইতিমধ্যে তার জুলুম দিন দিন বেড়েই চলেছে।

অনুসন্ধান করতে গিয়ে উঠে আসে মো.বাদল জনৈক মোঃ আলাউদ্দিন শেখ এর ঘটনা। মো.বাদল বলেন জনৈক মোঃ আলাউদ্দিন শেখ এর নিকট হতে একটি বার্জ ভাড়া নিয়ে তা বিভিন্ন ছোট ছোট প্রজেক্টে সাব ভাড়া দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করি। জসিম ওরফে ডাকাত কালা জসিম বিগত ১৯/১২/২০২১ তারিখে আমার আওতাধীন বার্জ খানা মাসিক ৩,০০,০০০/- টাকা ভাড়া চুক্তিপত্র সম্পাদন পূর্বক এন.আর.বি.সি ব্যাংক পঞ্চবটি শাখার ইস্যুকৃত ৪ টি চেক প্রদান পূর্বক ভাড়া নেয়। ভাড়া নেওয়ার সময় তার সাথে কথা ছিল যে, প্রতি মাসে ভাড়া দেওয়ার পর একটি করে চেক ফেরৎ নিয়া যাবে। কিন্তু ভাড়া নেওয়ার পর থেকে এই পর্যন্ত কোন প্রকার ভাড়া দেয় নাই ভাড়া চাইতে গেলে উল্টো বিভিন্ন প্রকার তালবাহানা করতে থাকে। এরই প্রেক্ষিতে জসিমের কাছে ৩ মাসের ভাড়া বকেয়া হয়ে যায়। বক্তাবলী ফেরিঘাটের দক্ষিণ পার্শ্বস্থ এলাকায় তার থেকে বকেয়া ভাড়া চাইলে জসিম সহ তার সহযোগিরা আমাকে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করতঃ আমার ভাড়ার টাকা পরিশোধ করবে না বরং আর তার কাছে টাকা চাইলে আমাকে এলাকা ছাড়া করবে বলে হুমকি দেয়।

অভিযোগে বাদল আরও বলেন গত বৃহস্পতিবার ( ২৪ মার্চ ) দুপুর ১২ টার সময় আমি সহ জনৈক মোঃ আলাউদ্দিন শেখ সহ ২জন প্রতিনিধি নিয়া জসিমের কাছে পাওনা ভাড়ার টাকা চাহিতে গেলে সে কোন প্রকার উত্তর না দিয়ে চুপ করে থাকে, এক পর্যায়ে কোন কিছু বুঝার আগেই জসিম ও তার সহযোগী অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জন দেশীয় ধারালো অস্ত্রশস্ত্র এবং মোটা কাঠের ডাসা নিয়া আমাদের উপর অতর্কিত হামলা শুরু করে। এক পর্যায়ে আমার অধীনে থাকা একজন ষ্টাফ কে এলো পাথারি মারপিট করে এবং তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলা ফুলা জখম করে এ বিষয়ে আমি ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি ।
ছুচকে চোর থেকে রাঘব বোয়াল। ফুটপাত থেকে উচ্চমানের ব্যবসায়ী, কেউই রেহাই পাচ্ছে না ডাকাত কালা জসিম এর হিংস্র থাবা থেকে। সবসময় তার স্বশস্ত্র বাহিনী কৌশলে অবস্থান করছেন তার চারপাশে।

Share on facebook
16
Share on twitter
6
Share on linkedin
3
Share on whatsapp
5

Posts

প্রধান পৃষ্ঠপোষক: আলহাজ্ব ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ্ (এমপি),মাননীয় সংদ সদস্য ঢাকা ১৬,
প্রধান উপদেষ্ঠা: সাইদুর রহমান রিমন, সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন
চেয়ারম্যান ও প্রকাশক: মোঃ মাসুদ রানা (জিয়া), সহকারি সম্পাদক, দৈনিক অগ্নিশিখা,
সম্পাদক: শাহাজাদা শামস ইবনে শফিক
সহ-সম্পাদক: মোঃশরিফুল ইসলাম (রবিন)

সম্পাদকীয় কার্যালয়
১২০/এ মতিঝিল বা/এ, ৪থ তলা, সুইট-৪০২, ঢাকা- ১০০০
বার্তা কক্ষ : ০১৬৪২০৭৮১৬৪
বিজ্ঞাপনের জন্য : ০১৬৮৬৫৭১৩৩৭
Gmail:banglarrazpratidin@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Crafted with by banglarraz24.com© 2022

x

Contact Us