৩১ বছর পর গান্ধী পরিবারের কাছে দুঃখ প্রকাশ সেই নলিনীর

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর অন্যতম হত্যাকারী নলিনী শ্রীহরণ তার কৃতকর্মের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

কারামুক্তির পর তিনি বলেছেন, বোমা হামলায় যারা নিহত হয়েছেন, তাদের পরিবারের জন্য আমি দুঃখিত। খবর এনডিটিভির।

রাজীব গান্ধীর হত্যাকারী নলিনীসহ ছয়জনকে গত শুক্রবার মুক্তি দেন ভারতের সুপ্রিমকোর্ট। ৩১ বছর জেল খাটার পর নলিনীর সঙ্গে মুক্তিপান জয়কুমার, সন্তন, মুরুগান, রবার্ট পায়াস ও রবিচন্দ্রন।

মুক্তির পর নলিনীর কাছে ভাতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়— রাজীব গান্ধীসহ যারা নিহত হয়েছেন, তাদের পরিবারের জন্য তার কোনো বার্তা আছে কিনা।

জবাবে নলিনী বলেন, ‘আমি তাদের (স্বজন) জন্য খুবই দুঃখিত। আমরা এ বিষয় নিয়ে অনেক বছর চিন্তা করেছি। আমরা দুঃখিত।’

নলিনী বলেন, তারা (স্বজন) তাদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন। তারা একসময় এই ট্র্যাজেডি থেকে বেরিয়ে আসতে পারবেন বলে তিনি আশা করেন।

১৯৯১ সালের ২১ মে দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের শ্রীপেরুমবুদুরে এক নির্বাচনি জনসভায় যোগ দেন রাজীব গান্ধী।

এ সময় শ্রীলংকার লিবারেশন টাইগার্স অব তামিল ইলমের (এলটিটিই) এক সদস্যের আত্মঘাতী বোমা হামলায় রাজীব গান্ধী নিহত হন। এ ছাড়া হামলাকারী ধানুসহ ১৬ জন ঘটনাস্থলে নিহত হন।

রাজীব গান্ধী হত্যায় নলিনীসহ গ্রেফতারকৃত সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। ২০০০ সালে রাজীব গান্ধীর স্ত্রী সোনিয়া গান্ধীর হস্তক্ষেপে নলিনীর মৃত্যুদণ্ডের সাজা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে রূপান্তরিত হয়।

16
6
3
5

Posts

প্রধান পৃষ্ঠপোষক: আলহাজ্ব ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ্ (এমপি),মাননীয় সংদ সদস্য ঢাকা ১৬,
প্রধান উপদেষ্ঠা: সাইদুর রহমান রিমন, সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন
চেয়ারম্যান ও প্রকাশক: মোঃ মাসুদ রানা (জিয়া), সহকারি সম্পাদক, দৈনিক অগ্নিশিখা,
সম্পাদক: শাহাজাদা শামস ইবনে শফিক
সহ-সম্পাদক: মোঃশরিফুল ইসলাম (রবিন)

সম্পাদকীয় কার্যালয়
১২০/এ মতিঝিল বা/এ, ৪থ তলা, সুইট-৪০২, ঢাকা- ১০০০
বার্তা কক্ষ : ০১৬৪২০৭৮১৬৪
বিজ্ঞাপনের জন্য : ০১৬৮৬৫৭১৩৩৭
Gmail:banglarrazpratidin@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Developed by banglarraz24.com © 2022
x

Contact Us